পাত্রের বয়স ৭০, পাত্রীর ৩৫

0 ১,২৭৯

নিউজ টাইমস্ থ্রিসিক্সফাইভ//
৭০ বছর বয়সে বিয়ের পিঁড়িতে বসেছেন বাগেরহাটের রামপাল উপজেলার জিগিরমোল্লা গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত অধ্যাপক হাওলাদার শওকত আলী। কনে মোংলা উপজেলার মিঠাখালি ইউনিয়নের বাসিন্দা শাহিদা বেগম নাজু (৩৫)। দু’জনের বয়সের পার্থক্য দ্বিগুণ হলেও পরিবারের সিদ্ধান্তে গাঁটছড়া বেধেছেন তারা।

গত ১৮ মার্চ শাহিদা বেগকে বিয়ে করেন শওকত আলী। দুই পরিবারের লোকজনের উপস্থিতিতে তাদের বিয়ে সম্পন্ন হয়।

বরের পরিবার ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শওকত আলী রামপাল সরকারি কলেজের অধ্যাপক ছিলেন। বাবা মারা যাওয়ার পরে পরিবারে হাল ধরতে এবং ভাই-বোনদের বড় করতে গিয়ে তার সংসার করা হয়ে ওঠেনি। তবে চাকরি থেকে অবসরের পর তিনি একাকিত্ব বোধ করেন। তাই বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তিনি।

- Advertisement -

শওকত আলীর সঙ্গে শাহিদার বয়সের পার্থক্য ৩৫ বছর
শওকতের ছোট ভাই আব্দুল হালিম খোকন বলেন, আমরা সব ভাই-বোন তার কাছে মানুষ হয়েছি। সারা জীবন তিনি আমাদের সুখে-দুঃখে বটবৃক্ষের মতো আগলে রেখেছে। বর্তমানে আমরা নিজেদের নিয়ে কাজকর্ম ও ব্যবসা-বাণিজ্য নিয়ে ব্যস্ত থাকি। এ কারণে আমাদের ভাই অবসরে যাওয়ার পর অনেকটা একাকী হয়ে পড়েন। আমরা অনেক জোড়াজোড়ি করলে শেষ পর্যন্ত তিনি বিয়ে করতে রাজি হন।

মোংলার মিঠাখালি ইউনিয়নের বাসিন্দা শাহিদা আক্তার নাজু (৩৫) এক কন্যা সন্তানের জননী। বেশ কিছুদিন আগে তার স্বামী মারা যান। পরে পরিবারিক সিদ্ধান্তে তিনি শওকত আলীকে বিয়ে করতে রাজি হন বলে জানিয়েছেন তার স্বজনরা।

Facebook Comments

Leave A Reply

Your email address will not be published.